জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ও ছাত্রছাত্রীদের হল ত্যাগের নির্দেশ ।

0
41
দূর্নীতির অভিযোগে চলমান উপাচার্য বিরোধী আন্দোলনের জের ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।ছাত্রছাত্রীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
সোমবার সন্ধ্যা থেকেই উপাচার্য অধ্যাপক ফারাজানা ইসলামের বাসভবন ঘেরাও করে রেখেছিলো আন্দোলনকারী শিক্ষকরা। আজ মঙ্গলবার উপাচার্যপন্থী একদল শিক্ষক উপাচার্যের বাসভবনে প্রবেশের চেষ্টা করেও পারেননি।
এরপর  ছাত্রলীগের ব্যানারবাহী একটি মিছিল সেখানে আসে। মিছিলে প্রায় দুই শতাধিক নেতা-কর্মী ছিলো। মিছিল থেকে উপাচার্যবিরোধী আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চালানো হয়। মিছিলকারীরা উপাচার্যবিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী – শিক্ষকদের সেখান থেকে হটিয়ে দেন। তারপরে তাঁরা ওই জায়গায় অবস্থান নেন। এরপর ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী ও তাঁর সমর্থক শিক্ষকদের নিয়ে উপাচার্য ফারজানা ইসলাম পুরোনো প্রশাসনিক ভবনে তাঁর নিজ কার্যালয়ে যান।
এর পর সিন্ডিকেটের জরুরি সভা ডাকা হয় এবং সেই সভাতেই বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ও সিন্ডিকেটের সদস্যসচিব রহিমা কানিজ ।
প্রক্টর ফিরোজ উল হাসান বলেন, আন্দোলনের নামে বিশ্ববিদ্যালয় জুড়ে অস্থিতিশীলতা তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া আন্দোলনের নামে নিষিদ্ধ সংগঠন শিবিরের তৎপরতা শুরু হয়েছে। সে কারণে সামনে হয়তো বড় দুর্ঘটনা ঘটানোর চক্রান্ত হতে পারে। এসব কারণেই সিন্ডিকেট বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
তিনি বলেন শিক্ষার্থীদের বিকেল সাড়ে চারটার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় ও হল বন্ধ থাকবে এবং ক্যাম্পাসে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ থাকবে।
আজকের হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে ১২ জন চিকিৎসা নিয়েছেন। অন্তত ২০ জনকে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
উবাভ নিউজ ডেস্ক/জেড এম

একটি উত্তর দিন

অনুগ্রহ পূর্বক আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ পূর্বক এখানে আপনার নাম লিখুন

20 − 17 =