ssaviation

বাংলাদেশের মোবাইল অপারেটর কোম্পানি গুলোর মধ্যে বৃহৎ কোম্পানি হচ্ছে গ্রামীণফোন (জিপি)।   কোম্পানিটির কাছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি প্রায় ১২শ কোটি টাকা বকেয়া রাজস্ব দাবি করেছে। ওই দাবি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত নতুন সিম ইস্যুসহ কোনো নতুন সেবার অনুমতি বন্ধ রেখেছে বিটিআরসি।

ssaviation

ফলে সিম সঙ্কটে পড়তে যাচ্ছে দেশের সবচেয়ে বড় মোবাইলফোন অপারেটর গ্রামীণফোন ।  প্রতিষ্ঠানটির হাতে যে পরিমাণ সিম রয়েছে,তা দিয়ে বড়জোর দুই সপ্তাহের চাহিদা মেটানো যাবে। এরপর আর গ্রাহকদের কাছে সিম বিক্রি করতে পারবে না প্রতিষ্ঠানটি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ইয়াসির আজমান বলেন,আমাদের হাতে কোনও সিম নেই।খুচরা বিক্রেতাদের হাতে কিছু সিম রয়েছে।সেগুলো শেষ হয়ে গেলে আর সিম পাওয়া যাবে না।

তিনি বলেন,বিটিআরসি তাদেরকে আর নতুন করে সিম বিক্রির অনুমতি দিচ্ছে না। এমনকি যেসব সিম ১৮০ দিনের বেশি নিষ্ক্রিয় রয়েছে,সেগুলোর বিপরীতেও নতুন বিক্রির অনুমতি মিলছে না। এই ধরনের সিমের সংখ্যা প্রায় ৩০ লাখ বলে জানান তিনি। আর এটি দিয়েও প্রায় দেড় মাসের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হতো।

তিনি আরও বলেন,হাতে থাকা সব সিম বিক্রি হয়ে গেলে বিদ্যমান গ্রাহকদের কারো সিম নষ্ট হয়ে গেলেও সেগুলো রিপ্লেস করা যাবে না। তখন শুধু কোম্পানির জন্য নয়, গ্রাহকদের জন্যও নতুন সঙ্কট তৈরি হবে।

বিটিআরসির দাবি এবং আদালতের নির্দেশনার প্রেক্ষিতে কোম্পানিটি ৫৭৫ কোটি টাকা পরিশোধে আগ্রহের কথা জানিয়েছে।এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইয়াসির আজমান বলেন,সরকারের বকেয়া পাওনা নিয়ে গ্রামীণফোনের সঙ্গে যে সংকট চলছে,তিন থেকে চার সপ্তাহের মধ্যে তার দৃশ্যমান উন্নতি হবে।

উবাভ নিউজ ডেস্ক/জামান

একটি উত্তর দিন

অনুগ্রহ পূর্বক আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ পূর্বক এখানে আপনার নাম লিখুন

twenty + ten =