জন বি গুডএনাফ, এম স্ট্যানলি হুইটিংগাম, আকিরা ইয়োশিনো।
ssaviation

এ বছর রসায়নে নোবেল দেওয়া হয়েছে তিন বিজ্ঞানীকে  এঁরা হলেন জন বি গুডএনাফ, এম স্ট্যানলি হুইটিংগাম, আকিরা ইয়োশিনো।

জন বি গুডএনাফ, জন্মগ্রহণ করেছিলেন ১৯২২ সালে জার্মানির জেনায়, স্ট্যানলি হুইটিংহামের জন্ম  যুক্তরাজ্যে ১৯৪১ সালে আর আকিরা ইয়োশিনো,১৯৪৮ সালে জাপানের স্যুইটে জন্মগ্রহণ করেন।

বিবিসির ভাস্যমতে, ৯৭ বছর বয়সী জন বি গুডএনাফ নোবেলের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সে এ পুরস্কার পেলেন।

 নোবেল কমিটি জানিয়েছে, ‘আমাদের জীবনে লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে। এই ব্যাটারি এখন মোবাইল থেকে শুরু করে ল্যাপটপ এবং গাড়িতে পর্যন্ত ব্যবহৃত হচ্ছে।’

বিজ্ঞানী হুইটিংগাম ১৯৭০ এর দশকে প্রথম ব্যবহারযোগ্য লিথিয়াম ব্যাটারির উন্নয়ন ঘটান। এরপর গুডএনাফ ওই ব্যাটারির ক্ষমতাকে দ্বিগুণ করে তোলেন। এরপর আকিরা ইয়োশিনো ওই ব্যাটারি থেকে খাঁটি লিথিয়াম দূর করে লিথিয়াম আয়ন প্রযুক্তির উন্নয়ন ঘটনা। এই প্রযুক্তি খাঁটি লিথিয়াম থেকে বেশি নিরাপদ। এর ফলেই প্রাত্যহিক জীবনে এই ব্যাটারি ব্যবহার সহজ হয়েছে । /সূত্রঃঅনলাইন ডেস্ক/

একটি উত্তর দিন

অনুগ্রহ পূর্বক আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ পূর্বক এখানে আপনার নাম লিখুন

one × 5 =